আজ ২৬শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ইং

মাতারবাড়ী সড়কে ফের ডাকাতি আতংকিত পথযাত্রীরা

মহেশখালী প্রতিনিধি :

মাতারবাড়ী সংযোগ সড়কে ফের ডাকাতীর ঘটনা ঘটেছে । এতে আতংকিত হয়ে পড়েছে ঐ সড়ক দিয়ে যাতায়াতকারী মাতারবাড়ী ও ধলঘাটা ইউনিয়নের লোকজন । ডাকাতীর শিকার ভিকটিম এবং বিভিন্ন তথ্য সূত্রে জানা যায় , ৫ফেব্রুয়ারী (শুক্রবার) ভোর আনুমানিক সাড়ে ৫ঘটিকার সময় মাতারবাড়ীর ১জন পান ব্যবসায়ী প্রতিদিনের ন্যায় ভোরে পান ক্রয় করার জন্য টমটম নিয়ে শাপলাপুর যাচ্ছিল । এসময় তিনি মাতারবাড়ী থেকে কালারমারছড়া ইউনিয়নের উত্তর নলবিলা বড়ুয়া শ্মশানের কাছে অর্থাৎ মাতারবাড়ী সড়কের মাথায় পৌছলে আগে থেকে উৎপেতে থাকা ৩জন ডাকাত তাদের দারালো অস্ত্র-স্বস্ত্র নিয়ে টমটম থামিয়ে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে পান ব্যবসায়ী মাতারবাড়ীর ফজল করিম নামের এক ব্যাক্তি থেকে ৩০হাজার টাকা এবং তার সাথে থাকা আরেক ব্যাক্তি থেকে ২০হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় । এসময় তারা বাঁধা দিতে চাইলে ডাকাত দল পান ব্যবসায়ীকে মারধর করে বলেও জানান । তাৎক্ষণিক ডাকাতদের পরিচয় না পেলেও কালারমারছড়া ইউনিয়নের স্থানীয় এক ইউপি সদস্য পরে খবর নিয়ে জানতে পারেন যে , মাতারবাড়ী সড়কে ডাকাতীর ঘটনায় চালিয়াতলীর মফিজ ও উত্তর ঝাপুয়া এলাকার কালা রিদুয়ান নামের দুই ডাকাত এ ঘটনার সাথে জড়িত রয়েছে বলে জানান তিনি । এদিকে বিগত ৪বছর আগে উক্ত সড়কে সন্ধার পর হলেই সড়কটি নিয়ন্ত্রণ নিত ডাকাতরা । সে সময় দ্বীপ ইউনিয়ন মাতারবাড়ী ও ধলঘাটা ইউনিয়নের লোকজন সন্ধার পরে এই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করার সাহস করত না । কেউ সন্ধার পর উক্ত সড়ক দিয়ে যাতায়াত করলে সে নিশ্চিত ডাকাত দলের কবলে পড়ে তার সর্বস্ব ছিনিয়ে নিত ডাকাতরা । বিষয়টি স্থানীয় সাংসদ আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক গুরুত্বসহকারে আমলে নিয়ে মাতারবাড়ী সহ পুরো মহেশখালী সড়কে ডাকাতী বন্ধ করার জন্য মহেশখালী থানা পুলিশ প্রশাসনের সাথে বৈঠকে বসেন । এবং মহেশখালী থানা পুলিশও এব্যাপারে কঠোর অবস্থানে গিয়ে ডাকাত দলের বিরুদ্ধে দফায় দফায় অভিযান চালিয়ে সে সময় ডাকাত দলের বড় বড় গড়ফাদারদের গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হন । বাকী ডাকাতরা কালারমারছড়ায় র‍্যাবের আত্বসমর্পণ অনুষ্ঠানে স্বেচ্ছায় আত্বসমর্পণ করে জেল হাজতে চলে যায় । এতে মাতারবাড়ী সহ পুরো মহেশখালী বন্ধ হয়ে যায় সড়ক ডাকাতী । দ্বীর্ঘ দিন সড়ক ডাকাতী বন্ধ হওয়ায় স্বস্তি প্রকাশ করেন মহেশখালীর সর্বস্তরের জনগন । এদিকে হঠাৎ ৫ফেব্রুয়ারী (শুক্রবার) ভোরে মাতারবাড়ী সংযোগ সড়কে ফের ডাকাতীর ঘটনা সংঘটিত হওয়ায় আবারো আতংকিত হয়ে পড়েছে দ্বীপ ইউনিয়ন মাতারবাড়ী ও ধলঘাটার লোকজন । এই দুই ইউনিয়নের মানুষের একমাত্র যাতায়াত হচ্ছে চালিয়াতলী টু মাতারবাড়ী সংযোগ সড়কটি । ফলে আবারো দুই ইউনিয়নবাসি উক্ত সড়কে যাতায়াতকালে তাদের নিরাপত্তা নিয়ে শংকা প্রকাশ করেছেন । এদিকে মহেশখালী মাতারবাড়ীতে দেশের সর্ববৃহৎ উন্নয়ন প্রকল্প হওয়ার সুবাদে সেখানে বর্তমানে দেশিব বিদেশী কয়েক হাজার শ্রমিক ও বিভিন্ন প্রকৌশলী সহ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা মাতারবাড়ীর এই সড়ক দিয়েই যাতায়াত করে থাকেন । দ্রুত ডাকাতদের গ্রেপ্তার করতে না পারলে প্রকল্পে নিয়োজিত কর্মকর্তাদেরও উক্ত সড়কে নিরাপত্তা নিয়ে শংকা প্রকাশ করেন সচেতন মহল । এব্যাপারে মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আব্দুল হাই থেকে জানতে চাইলে তিনি বলেন , মাতারবাড়ী সড়কে ডাকাতীর ঘটনার সম্পর্কে আমি অবগত নয় । এব্যাপারে আমাকে কেউ জানায় নি । তবে ভিকটিমের অভিযোগ পেলে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থান নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি ।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ