আজ ৪ঠা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জানুয়ারি, ২০২১ ইং

দৈনিক আগামীর সংবাদে সংবাদ প্রকাশ, কোয়ারেন্টাইন না মানায় নবাবগঞ্জে ভ্রাম্যমান আদালত

দোহার নবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

 

দৈনিক আগামীর সংবাদে আজ “সৌদি ফেরত ব্যক্তি ঘুরে বেড়ানোর কারণে আতঙ্কে নবাবগঞ্জের রাজারামপুর বাসী” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের পর ঐ বাড়িতে উপজেলা প্রশাসনের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে বিদেশ ফেরত লিয়াকত হোসেন(৩৭) কে কোয়ারেন্টাইন না মানার অপরাধে ৫০০০ টাকা জরিমানা করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার(১৯) মার্চ রাত ৯টায় রাজারামপুরের মোল্লা বাড়িতে এ ভ্রাম্যমান আদালতের নেতৃত্ব দেন নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব এ এইচ এম সালা উদ্দিন মঞ্জু। এ সময় নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জনাব মোঃ মোস্তফা কামাল, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ শহীদুল ইসলাম এবং কলাকোপা ইউপি চেয়ারম্যান ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য যে, মধ্যপ্রাচ্য ফেরত এক প্রবাসী কোয়ারেন্টাইন না থেকে অবাধে চলাফেরা করায় চরম করোনা আতঙ্ক বিরাজ করছে ঢাকা জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার কলাকোপা ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ড রাজারামপুর এলাকার মোল্লা বাড়ির চারতলা ভবনের ৩য় তলার ভাড়াটিয়া লিয়াকত হোসেন (৩৭) তিনি গত ১২ মার্চ সৌদি আরব থেকে আসেন।
সরকারী নীতিমালা অনুযায়ী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের অংশ হিসেবে দুই সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা থাকলেও কোনো ভাবেই তা মানছেন না সৌদি প্রবাসী সেই ভদ্রলোক। বাড়ির মালিক সফিক মোল্লা বলেন তিনি আজই বিষয়টি স্থানীয় থানায় জানাবেন। ভাড়াটিয়াদের মধ্যে অনেকেই তাকে কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দিলেও তাতে তিনি কর্ণপাত করছেন না। এতে করে চরম করোনা আতঙ্ক বিরাজ করছে বাড়িটির বাসিন্দাসহ পাড়া প্রতিবেশিদের মধ্যে। স্বজনদের পাশাপাশি মিশছেন প্রতিবেশিদের সাথেও।

সৌদি প্রবাসী এই ব্যক্তির অবাধে মেলামেশা ও চলাফেরায় সবচেয়ে ঝুঁকিতে তাদের প্রতিবেশিরা। বিষয়টি নিয়ে বেশ শঙ্কায় দিন কাটছে তাদের। গ্রামবাসী আতংকের মধ্যে তো আছি।

অনেকের মতে, বিদেশ থেকে ভাইরাস বহন করে এনে দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণ করে প্রবাসীরা দেশে করোনাভাইরাস ছড়াচ্ছেন। প্রবাসীরা নিজের পরিবারের মধ্যেই রোগ ছড়াচ্ছেন। কোয়ারেন্টাইনের নামে বাসায় গিয়ে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে মেলামেশা করেছেন। ভাইরাস ছড়িয়েছেন। এসব কারণে দিন যতো যাচ্ছে প্রবাসীদের দ্বারা করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কাও ততোই বাড়ছে। এলাকাবাসীর দাবি, সৌদি ফেরত এই প্রবাসীকে আইনের মাধ্যমে দ্রুত কোয়ারেন্টাইনে যেন নিয়ে যাওয়া হয়।

সৌদি প্রবাসী লিয়াকত হোসেন মুঠোফোনে জানান তিনি গত ১২ মার্চ দেশে আসেন তিনি সুস্থ আছেন। আগামী এক সপ্তাহে পরে আবার সৌদি আরব চলে যাবেন। তিনি আরও বলেন বাহিরে বের হন না।
নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে মুঠোফোনে ক্ষুদে বার্তার মাধ্যমে বিষয়টি অবহিত করা হলে উক্ত প্রবাসী ব্যক্তিকে কোয়ারেন্টাইন না মানার অপরাধে জরিমানা করা হয় এবং আগামী ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দেয়া হয়।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ