আজ ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৩শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

পারিবারিক ভাবে সচেতন হলেই অপরাধ কমে যাবে : এমপি এনামুল

বাগমারা প্রতিনিধিঃ 

রাজশাহীর বাগমারায় জেলা পুলিশের আয়োজনে কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০২০ পালিত হয়েছে। ‘মুজিববর্ষের মূলমন্ত্র কমিউনিটি পুলিশিং সর্বত্র’ পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ প্রতিপাদ্যকে ঘিরে উৎসব মূখর পরিবেশে পালিত হলো এবারের কমিউনিটি পুলিশিং ডে।
কমিউনিটি পুলিশিং ডে উপলক্ষে বাগমারায় বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর কমপ্লেক্সের সালেহা ইমারত মিলনায়তনে জেলা পুলিশ রাজশাহীর আয়োজনে আলোচনা সভা ও সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এবিএম মাসুদ হোসেন বিপিএম (বার) পুলিশ সুপার রাজশাহীর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের সংসদ সদস্য, সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির স্থায়ী সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি বলেন, অপরাধী অন্য কোথাও জন্ম নেয় না। কোন না কোন পরিবারের সন্তানই অপরাধের সাথে জড়িয়ে পড়ে। কোন সন্তান যেন মাদক সহ কোন অপরাধ মূলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে না পড়ে সে ব্যাপারে পরিবারের সবাইকে সচেতন থাকতে হবে।
শুরু থেকেই যে কোন অপরাধ দমন করতে না পারলে তা ক্রমেই বড় আকার ধারণ করে। কমিউনিটি পুলিশিং এর মাধ্যমে যেন কোন অপরাধীকে দ্রুত সময়ে চিহ্নিত করে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা যায়।
কমিউনিটি পুলিশিং মানে নিজ এলাকার দায়িত্ব নিজেকেই নিতে হবে। এতে সরকারের সহযোগিতা সব সময় আপনার পাশে থাকবে। সে কারনে আগে ঘরের সমস্যা দূর করতে হবে।
কমিউনিটি পুলিশিং এর মাধ্যমে প্রশাসনকে কাজে লাগাতে হবে। নিজের এলাকার অপরাধ কমাতে আপনার ইচ্ছা শক্তিই যথেষ্ট।
তিনি আরো বলেন, সর্বপ্রথম সামাজিক অবক্ষয় দূর কতে হবে। কল্যাণকর রাষ্ট্র করতে গেলে আদর্শকে কাজে লাগতে হবে। কোন সমাজে দু এক জন লোক খারাপ থাকতে পারে এর ফলে সমস্ত জাতি তার দায় বহণ করবেনা। বর্তমানে কোন অপরাধকে ঢেকে রাখা যাবে না। সমাজে যে কোন অপরাধ নির্মূলে কমিউনিটি পুলিশিং গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, টিএম মোজাহিদুল ইসলাম, বিপিএম, পিপিএম অতিরিক্ত ডিআইজি (প্রশাসন ও অর্থ) রাজশাহী রেঞ্জ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরিফ আহম্মেদ, বাগমারা থানার অফিসার ইনচার্জ আতাউর রহমান, উপজেলা আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুল।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান অনিল কুমার সরকার, রাজশাহীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মাহমুদুল হাসান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর ইফতেখায়ের আলম, বাগমারা থানার সেকেন্ড অফিসার মনিরুল ইসলাম, উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি মতিউর রহমান টুকুৃ, ভবানীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আব্দুল মালেক মন্ডল, তাহেরপুর পৌরসভার মেয়র আবুল কালাম আজাদ, কেশরহাট পৌরসভার মেয়র শহিদুজ্জামান শহিদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ আক্তার বেবী, মচমইল ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ কুমার প্রতীক দাশ রানা, উপজেলা আ’লীগের সহ-দপ্তর সম্পাদক নুরুল ইসলাম, উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর সভাপতি সিরাজ উদ্দীন সুরুজ, বাগমারা প্রেসক্লাবের সভাপতি আলতাফ হোসেন মন্ডল প্রমুখ।
এ সময় উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন কমিউনিটি পুলিশিং এর সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক, আ’লীগ ও অংগ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শেষে সনদপত্র বিতরণ করা হয়।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ