আজ ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জুন, ২০২১ ইং

ধামরাইয়ে প্রকল্প দেখিয়ে লুটপাটের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

 

ঢাকার ধামরাইয়ে ইজিপিপি প্রকল্পের ২০১৯-২০ অর্থ বছরের প্রথম পর্যায়ের প্রকল্পে অর্থ আত্মসাৎ এর অভিযোগ পাওয়া গেছে।
ধামরাই উপজেলার কুল্লা ইউনিয়ন পরিষদে বরাদ্দকৃত ৫টি প্রকল্পের মধ্যে একটি প্রকল্প হচ্ছে খাতরা কার্পেটিং রাস্তা হতে কুল্লা ইউপি রাস্তা পুনঃনির্মাণ। এ প্রকল্পে শ্রমিকের সংখ্যা ৪০ জন ২’শ টাকা হাজিরায় শ্রমিক কাজ করবে ৪০ দিন। মোট অর্থ ৩ লক্ষ ২০ হাজার টাকা। অভিযোগ পাওয়া গেছে, ওই প্রকল্পে কোন প্রকার কাজ না করেই প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা(পিআইও) কে ম্যানেজ করে বরাদ্দকৃত প্রকল্পের অর্থআত্মসাৎ করেছে প্রকল্পের সভাপতি ও ইপি চেয়ারম্যান।

প্রকল্প সভাপতি ও ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলাম বলেন, আমি শুধু প্রকল্পের সভাপতি প্রকল্প সম্পর্কে আমি কিছু জানি না।

কুল্লা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বাবু কালীপদ বলেন, প্রকল্পের কাজ অগ্রিম করা ছিল? পরে প্রকল্প দেখিয়ে কাজের টাকা উত্তোলন করা হয়েছে। আপনি? ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের সাথে কথা বলেন? প্রতিবেদক ইউনিয়ন পরিষদ সচিবের কাছে প্রকল্পের বিষয়ে জানতে চাইলে, ইউনিয়ন পরিষদ সচিব আবুল কালাম বলেন, এটা এমপি স্যারের কাজ এ বিষয়ে মাথা গামানো যাবেনা।

ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি স্থানীয় সংসদ সদস্য বেনজীর আহমদ এর কাছে প্রকল্পের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ সচিব মিথ্যার আশ্রয় নিয়েছে, ফালতু সেক্রেটারী।

এ ব্যাপারে প্রকল্পের ট্যাগ অফিসার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ফরিদ উদ্দিন আহমদ বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ সচিব আবুল কালাম আমাকে ভুল বুঝিয়ে অনুমোদন নিয়েছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা(পিআইও) শাহিনুজ্জামান প্রতিবেদকের প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিতে ব্যর্থতার পরিচয় দেয়।

ধামরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) সামিউল হককে মুঠোফোনে একাদিকবার কল করেও পাওয়া যায়নি বলে তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ