আজ ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭শে জুন, ২০২২ ইং

বিজিবির হাতে আটক যুবককে আহত অবস্থায় হাসপাতালে প্রেরণ

 

পলাশ পাল বিশেষ প্রতিনিধি:

বহু নাটকীয়তার পর অবশেষে সন্ধান মিলেছে বিজিবি’র হাতে আটক আব্দুর রউপ আবুর। আবুকে আহত অবস্থায় চুনারুঘাট হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন বাল্লা বিজিবি’র নায়েব সুবেদার জাহাঙ্গীর।

বৃহস্পতিবার সকালে এলাকার বিপুল সংখ্যক নারী পুরুষ জড়ো হয়ে আহত আবু’র খোঁজ করতে থাকে। বাল্লা বিজিবির নায়েব সুবেদার আবুকে আটকের ঘটনা অস্বীকার করলে সারা এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেয়। বিজিবি’র হাতে আটক আবুকে খুন করে লাশ পাশের খোয়াই নদীতে ফেলে দেয়া হয়েছে বলেও প্রচার হয় এলাকায়।

খবর পেয়ে চুনারুঘাট ওসি এম এ আশরাফ ঘটনাস্থলে এসে উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করার চেষ্টা করেন। ওসি আশরাফ বিজিবি’র সুবেদার জাহাঙ্গীরের সাথে যোগাযোগ করেন।

এর আগে বুধবার রাত প্রায় সাড়ে ১১ টায় বাল্লা পরিত্যক্ত রেল ষ্টেশন থেকে আবুকে আটক করেছিলেন বিজিবি’র সিকিউরিটি এরশাদ। আবুর বাড়ি গাজীপুর ইউনিয়নের টেকেরঘাট গ্রামে। তার বাবার নাম আঃ ছত্তার।

এলাকাবাসিরা জানান, ছোট বোনের জন্য ওষুধ কেনার জন্য আবু রাতে বাল্লা বাজারে গেলে সিকিউরিটি এরশাদসহ একদল বিজিবি জোয়ান তাকে আটক করে বাল্লা খেলার মাঠে নিয়ে বেদম প্রহাড় করতে থাকে। আবু’র শোর চিৎকারে আশ পাশের লোকজন ছুটে এলে বিজিবি জোয়ানরা তাদেরকে মাঠে প্রবেশ করতে দেয়নি। এক সময় আবুর শোর চিৎকার বন্ধ হয়ে যায়। এ ঘটনায় এলাকাবাসির মাঝে উত্তেজনা দেখা দেয়।

জাহাঙ্গীর বলেন, আবু হাসপাতালে রয়েছে। চিকিৎসার পর আহত আবুকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

টেকেরঘাট গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ আলী ও নুরু মিয়া বলেন- আবু কোন ধরনের অপরাধের সাথে জড়িত নয়। সে এলাকায় শান্ত প্রকৃতির ছেলে হিসেবে সমাদৃত। সে বহু কষ্ট করে ছোট ভাই বোনদের মানুষ করতে পরিশ্রম করে আসছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ