আজ ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে জুলাই, ২০২১ ইং

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে নিঁখোজ ফটিকছড়ির মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার 

 

ফটিকছড়ি প্রতিনিধি :

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে গিয়ে গোসলে নেমে নিঁখোজ ফটিকছড়ির মাদ্রাসা শিক্ষার্থী মোহাম্মদ মাহফুজ(১৮) এর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্প্রতিবার সকালে মহেশখালীর সোনাদিয়া চরে তার লাশ পাওয়া যায়।

জানা যায়, সোনাদিয়ার বোটের পাহারাদার জাকির হোসেন নামের জণৈক বোট পাহারাদার বোট পাহারা শেষে বাড়ি চলে যাওয়ার সময় সোনাদিয়ার মগচর পয়েন্ট চরে লাশটি দেখতে পান। তার পরনে একটি সবুজ গেঞ্জি ও একটি সাদা হাফপেন্ট রয়েছে। গায়ের রং শ্যামলা।
তবে, চিৎ হয়ে থাকায় লাশের চেহারা দেখা না যাওয়ায় বয়স অনুমান করতে পারেননি তিনি। পরে স্থাণীয়রা মহেশখালী থানা পুলিশকে খবর দিলে মাহফুজের লাশ হিসেবে চিহ্নিত করে।

এদিকে স্থাণীয় ইউপি সদস্য মোহাম্মদ সিহাব উদ্দিন সোয়াইব নিশ্চিত করে বলেন, মাহফুজের ভাই ও তার স্বজনরা মহেশখালী গেছেন, লাশ আনার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য যে, ফটিকছড়ি উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের কানি মিয়াজি বাড়ীর নতুন বাড়ী টিলার পাড় এলাকার দুবাই প্রবাসী মাহবুবুল আলমের ছেলে এবং মাদ্রাসা পড়ুয়া ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী মাহফুজ মঙ্গলবার সকালে চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি থেকে মামাতভাই ও বন্ধুদের সাথে ২৪ জনের একটি দল কক্সবাজার বেড়াতে আসে। পরে বিকালে তারা সমুদ্র সৈকতে ঘুরতে বের হয়।

বিকাল সাড়ে ৪ টার সময় বন্ধুরা মিলে সাগরে গোসলে নামে। এক পর্যায়ে ঢেউয়ের টানে মোহাম্মদ মাহফুজ সাগরে তলিয়ে যায়। সাথে সাথে অন্যরা এগিয়ে মাহফুজকে উদ্ধার করতে যাওয়া বন্ধুকে উদ্ধার করতে পারলেও নিখোঁজ হয় যায় মাহফুজ। বন্ধুরা তাকে কিছুক্ষণ খুঁজাখুঁজি করে না পেয়ে স্থানীয় লাইফ গার্ড ও ট্যুরিস্ট পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করে।পরে সাগরে পর্যটকদের নিরাপত্তায় নিয়োজিত থাকা বীচকর্মীরা খোঁজেও মাহফুজের সন্ধান পাননি।
অবশেষে নিঁখোজের তিনদিন পর বৃহষ্পতিবার সকালে মহেশখালীর সোনাদিয়া চরে তার লাশ পাওয়া যায়।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ