আজ ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে জুলাই, ২০২১ ইং

এ’ ক্যাটাগরিতে ফের বহাল ইলিশের বাড়ি খ্যাত ‘চাঁদপুর জেলা’

ইব্রাহীম খলীল সবুজ – চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধিঃ
প্রতি বছর সরকার কর্তৃক সারাদেশের ৬৪টি জেলার শ্রেণি বিভাগ হালনাগাদ করা হয়ে থাকে। তারি ধরাবাহিকতায় এবারো এতে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে বহাল রয়েছে ‘ইলিশের বাড়ি’ খ্যাত ‘চাঁদপুর জেলা’। মূলত ৮টি উপজেলা থাকায় চাঁদপুর ‘এ’ শ্রেণিভুক্তে অবস্থান কেড়ে আনে।
আর এ ক্যাটাগরি অনুযায়ী, সরকারি প্রকল্প গ্রহণ, ত্রাণ বরাদ্দ ও সরকারি জনবল নিয়োগ দেওয়া হয়ে থাকে।
এরশাদ সরকারের আমলে ৭টি উপজেলা নিয়ে ১৯৮৪ সালে মহকুমা থেকে চাঁদপুর জেলা গঠিত হয়েছিল। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর মতলব উপজেলা ভেঙ্গে ২টি (মতলব দক্ষিণ ও মতলব উত্তর) উপজেলাসহ মোট ৮টি উপজেলা গঠিত হয়। ৮টি উপজেলা হওয়ার পর থেকেই চাঁদপুরে ‘এ শ্রেণিভুক্ত’ হয়ে আসছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ক্যাটাগরি অনুযায়ী জেলাগুলোতে উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন, সরকারি ত্রাণ বরাদ্দ এবং সরকারি দফতরগুলোতে জনবল নিয়োগ দেওয়া হয়।
সূত্র আরো জানা যায়,
দেশের জেলাগুলোর নতুন শ্রেণি বিভাগ হালনাগাদ করছে সরকার। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সম্প্রতি ৬৪ জেলার হালনাগাদ শ্রেণি বিভাগ করে পরিপত্র জারি করেছে।
মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, আট বা এর বেশি উপজেলা থাকা জেলাকে ‘এ’, পাঁচ থেকে সাতটি উপজেলা থাকা জেলাকে ‘বি’ এবং পাঁচটির কম উপজেলা থাকা জেলাকে ‘সি’ শ্রেণির উপজেলার মর্যাদা দেওয়া হয়েছে।
এছাড়া অবস্থানগত কারণে বেশি গুরুত্ববহ জেলাকে ‘বিশেষ ক্যাটাগরি’র অন্তর্ভুক্ত করা হয়।
এ হিসেবে ‘বিশেষ ক্যাটাগরি’র ছয়টি, ‘এ’ ক্যাটাগরিতে ২৬টি, ‘বি’ ক্যাটাগরিতে ২৬টি এবং ‘সি’ ক্যাটাগরিতে ৬টি জেলা পড়েছে।
চট্টগ্রাম বিভাগ : এ বিভাগের চট্টগ্রাম জেলা রয়েছে বিশেষ ক্যাটাগরিতে। আর এই বিভাগের কুমিল্লা, রাঙামাটি, ব্রাক্ষণবাড়িয়া, খাগড়াছড়ি, নোয়াখালী, চাঁদপুর, কক্সবাজার ‘এ’ শ্রেণির জেলা। আর এর পাশাপাশি বান্দরবান, ফেনী ও লক্ষ্মীপুর ‘বি’ শ্রেণিতে রয়েছে।
এ বিষয়ে চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান মঙ্গলবার ১৮ই আগস্ট বলেন , ৮টি উপজেলা থাকায় দীর্ঘকাল ধরে চাঁদপুর ‘এ’ ক্যাটাগরিতে আছে। নতুন হালনাগাদেও তা বহাল রয়েছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ