আজ ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৮শে নভেম্বর, ২০২১ ইং

সাভার পৌরসভায় হাইড্রলিক হর্ণ নিষিদ্ধ ঘোষণা, পৌর মেয়র

নিজস্ব প্রতিবেদক

 

হাইড্রোলিক হর্ন হচ্ছে উচ্চ মাত্রার শব্দ সৃষ্টিকারী বিশেষ হর্ন যার সমতুল্য হর্ন হচ্ছে এখনকার ইলেকট্রনিক হর্ন। আমেরিকান স্পিচ অ্যান্ড হেয়ারিং অ্যাসোসিয়েশন (আশা) ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মতে, মানুষের জন্য শ্রবণযোগ্য শব্দের সহনীয় মাত্রা সর্বোচ্চ ৪০ ডেসিবেল। কিন্তু হাইড্রোলিক হর্ন শব্দ ছড়ায় ১২০ ডেসিবেল পর্যন্ত। এর স্থিতি ৯ সেকেন্ডের বেশি হলে ক্ষতিকর হয়ে ওঠে। এর প্রভাবে উচ্চ মাত্রার শব্দে শ্রবণশক্তি হ্রাস, বধিরতা, হৃদ্‌রোগ, মেজাজ খিটখিটে হওয়া, বিরক্তি সৃষ্টি, দুশ্চিন্তা, উগ্রতা, উচ্চ রক্তচাপ, টিন্নিটাসসহ অন্যান্য ক্ষতিকর ও বিরূপ প্রতিক্রিয়া ঘটতে পারে।

সাভারে বেশির ভাগ রিকশায় এখন ব্যবহার করা হচ্ছে হাইড্রলিক হর্নের প্রায় সমতুল্য ইলেকট্রনিক হর্ন,যা মানব শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর।তাই ছবিঘরে সংগঠনের পক্ষ থেকে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারী বিশ্ব ভালবাসা দিবসে ছবিঘর সাভারবাসিকে একটি অন্য রকম ভালবাসা দিবস উপহার দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে।তারা সাভার পৌরসভার অসংখ্য রিকশার হাইড্রলিক হর্ন বিনামূল্যে পরিবর্তন করে সাভারবাসিকে শব্দ দূষণ থেকে মুক্তির মাধ্যমে সাভারবাসিকে একটি অন্যরকম ভালবাসা দিবস উপহার দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে।

“হাইড্রলিক হর্ন বন্ধ হোক,কানের পোকা কানে ঢোক” এই স্লোগান নিয়ে তারা হাইড্রলিক হর্ন ও এর সমতুল্য ইলেকট্রনিক হর্ন ব্যবহার বন্ধের দাবী জানিয়েছে।

এর ধারাবাহিকতায় তারা সাভার পৌরসভায় হাইড্রলিক হর্ন নিষিদ্ধ করার জন্য সাভার পৌর মেয়রের কাছে আবেদন করে।তাদের ডাকে সাড়া দিয়ে সাভার পৌরসভার নগর পিতা মোঃ আলহাজ্ব আবদুল গনি তাদের আবেদন মেনে নিয়ে হাইড্রলিক হর্নে নিষেধাজ্ঞা জারী করার আবেদন গত (১২ ফেব্রুয়ারী) স্বাক্ষর করে দেন এবং তাদের সকলধরনের সহযোগিতা করার কথা জানান৷

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ