আজ ১০ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জুলাই, ২০২১ ইং

রাজশাহীর অজ্ঞাত ব্যক্তিকে তার পরিবারের কাছে পৌঁছে দিলেন সাংবাদিক ও ছাত্রনেতা

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, পুঠিয়া, রাজশাহী :

২৮শে জুলাই ঘড়ির কাটায় রাত প্রায় ১২.৩০ মিনিট বাজার থেকে বাসার উদ্দেশ্যে হেটে যাচ্ছিলেন সাংবাদিক আতিক, ছাত্রনেতা শান্ত ও সমাজসেবক ইউনুস আলী এবাদুল বাসার দিকে যাচ্ছিলেন, হটাৎ তারা দেখাতে পাই রাস্তার ধারে একজন বৃদ্ধ ব্যাক্তি রাস্তার পাশে শুয়ে আছে, গায়ে তার ময়লা শার্ট, পরণে ময়লা লুঙ্গি ও পায়ে ছেড়া স্যান্ডেল পড়ে সুয়ে আছে, এ সময় তারা জিজ্ঞাসাবাদ করে আপনার বাসা কোথায়, আর আপনি এখানে কিভাবে আসলেন? কিন্তু সে কনো উত্তর দিচ্ছিলো না, প্রায় ১৫ মিনিট চুপ করে থাকার পড়ে সে উত্তর দিলো এটাই আমার বাড়ি, অজ্ঞাত ব্যক্তি কে যতবার জিজ্ঞাসা করা হচ্ছিল ততবার এ কই উত্তর দিচ্ছে , এভাবে প্রায় ১ ঘন্টা হয়ে গেছে, তাকে জিজ্ঞাসা করা হয় আপনি খেয়েছেন সে উত্তর দিলো হা খেয়েছি, তারা তার কথা শুনে মনে হলো সে কনো ভাল ফ্যামিলির ব্যাক্তি, আবার তাকে জিজ্ঞাসা করতে থাকে, আপনার বাসা কোথায় সে আবার একই উত্তর দিচ্ছিলো এটাই আমার বাসা, এক পযায়ে তারা ভাবলেন ওথাক এখানেই আমরা চলে যাই কিন্তু কেনো যানি নিজেদের বিবেগ বাধা দিচ্ছিলো এটা যদি আমাদের বাবা অথবা ভাই হতো তাই আর রেখে যেতে পারলেন না,, তারপর বিভিন্ন কৌশলে কৌশলে তারা বারবার জিজ্ঞাসা বাদ করতে থাকে, হটাৎ সে উত্তর দিলো আমার বাড়ি চর শ্যামপুর আর আমার ছেলের নাম টিটু এর বেশি সে আর কিছুই বলতে পারছে না, তারপর সাংবাদিক আতিক কাটাখালি থানা পুলিশের সাহায্য নিয়ে তাদের সবকিছু খুলে বললাম, আমাদের কাছে যাস্ট দুইটা তথ্যই ছিলো, যে তার বাসা শ্যামপুর আর ছেলের নাম টিটু তারপরে কাটাখালি থানা পুলিশ অনেক চেস্টার পরে তার ছেলের খোঁজ পায় এবং আমাদের সাথে যোগাযোগ করিয়ে দেয়, তখন রাত প্রায় ৩.৩০ মিনিট তখন তার ফ্যামিলির লোকজনের সাথে কথা বললে তারা জানায় আমাদের এত রাত্রে যাওয়ার সমস্যা আপনারা যদি আমাদের সাহায্য করে থানা পর্যন্ত এগিয়ে দিতেন আমাদের খুব উপকার হতো এই কথা শুনে সাংবাদিক আতিক ছাত্রনেতা শান্ত তাকে মোটরসাইকেলযোগে পুঠিয়া থানা নিয়ে যায় এরপর অজ্ঞাত ব্যক্তির বাড়ির স্বজনেরা এলে পুঠিয়া থানার এসআই নূরুল ইসলামের মাধ্যমে অজ্ঞাত ব্যক্তিকে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয় পুলিশের মাধ্যমে তার ছেলের কাছে তাক পৌঁছে দেওয়া হয়, তার ছেলে বাবাকে পেয়ে খুব খুশি, তার ছেলের আনন্দ দেখে আমরা অনেক আত্ততৃপ্তি পেয়েছি, তার ছেলের থেকে পরে জানতে পারলাম ব্যাক্তির নামঃ মোঃ গিয়াস উদ্দিন, সাবেক সরকারি চাকুরীজিবী প্রায় ৫ দিন আগে হারিয়ে গেছে, তারা অনেক খুজেছে কিন্তু পায় নাই।
এ বিষয় নিয়ে সাংবাদিক আতিক সমাজসেবক ইউনুস আলী এবাদুল ছাত্রনেতা শান্ত
সকলে সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন যেন এমন মহৎ কাজ অব্যাহত রেখে অসহায় মানুষের পাশে থাকতে পারি।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ