আজ ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

চাঁদপুরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধের দাবিতে ঢাকায় মানববন্ধন

 
ইব্রাহীম খলীল সবুজ – চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধিঃঃ
      
চাদপুরে বর্ষার কারণে অনন্য বছরের তুলনায় এবছর সবচেয়ে বেশি ক্ষতিসাধিত হয়েছে। যা বিগত বছরের তুলনায় অনেক বেশি। যার পিছনের মুল কারণ অবৈধভাবে বালু উত্তোলন।
তাই চাঁদপুরকে রক্ষার জন্য ও অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধসহ কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করার দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করছে ঢাকাস্থ চাঁদপুর জেলা সাংবাদিক ফোরাম।
সংগঠনের নেতৃবৃন্দ রোববার ২৬ই জুলাই ঢাকার জাতীয় প্রেসক্লাবে মানববন্ধন করে এসব দাবি তুলে ধরেন।
সংগঠনের সভাপতি মিজান মালিক বলেন, চাঁদপুর আমাদের প্রাণের শহর। আমাদের শেকড় চাঁদপুরে। কিন্তু, অব্যাহত নদী ভাঙনে আজ বিলীনের পথে চাঁদপুরের বিভিন্ন নদী তীরবর্তী জনপদ । এসব আমাদের পীড়িত করে। তাই নৈতিক দায় থেকে আমরা এই দাবিতে নেমেছি ।
আশাকরি সরকার অতিদ্রুত নদী থেকে অবৈধভাবে বালু ও মাটি কাটা বন্ধ করে চাঁদপুরকে নদী ভাঙন থেকে রক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন। না হয় গত ক বছরে ভাঙন ঠেকাতে তীরবাঁধ সৃষ্টি করা হয়েছে ও কয়েক’শ কোটি টাকা খরচ করেছে তা নদী খাবলে খাবে।
সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি জাগো নিউজের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মহিউদ্দিন সরকার বলেন, চাঁদপুরকে কার্যকর ভাবে রক্ষা করতে হলে সমন্বিত পদক্ষেপ নিতে হবে। এর কেনো বিকল্প নেই। তিনি চাঁদপুরকে রক্ষার জন্য এখনই পদক্ষেপ নিতে বলেন।
সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রাশেদ শাহরিয়ার পলাশ বলেন, ১৯৭২ সালেই বঙ্গবন্ধু চাঁদপুরকে রক্ষা করার উপর গুরুত্ব দিয়েছিলেন। সে সময়ের পত্রপত্রিকায় এসব খবর স্বাক্ষী হয়ে আছে। পরে বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সে অব্যাহত রাখেন।
স্থানীয় সাংসদ ডা. দীপু মনির প্রচেষ্টায় ৩০০ কোটি টাকারও বেশি ব্যয়ে হাইমচর ও চাঁদপুরের বৃহদাংশের স্থায়ী বাঁধ নির্মান করা হয়। বর্তমানে রাজরাজেশ্বরের কিছু অংশ, ইশানবালা, ইব্রাহীমপুর, হানারচর এবং চাঁদপুরের মূল শহরের পুরান বাজার এবং নতুন বাজার মোলহেড হুমকীর মুখে রয়েছে। তিনি দাবি করেন ষাটনল থেকে হাইমচরের চর ভৈরবী পর্যন্ত রিভার ড্রাইভ নির্মাণ করলে এক দিকে চাঁদপুরের জন্য স্থায়ী বাঁধ হবে অন্যদিকে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি হবে।
তিনি আরো বলেন, সাংবাদিকদের কাজ আন্দোলন করা নয়। কিন্তু বাধ্য হয়েই নিজ জেলাকে রক্ষার জন্য দায়িত্বশীলদের দৃষ্টি আকৃষ্ট করতে আমরা এ কর্মসূচি দিয়েছি।
সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক মাজহারুল হক মান্না বলেন, চাঁদপুরের অনেক ইতিহাস ঐতিহ্য রয়েছে। চাঁদপুরকে রক্ষা করতে না পারলে আমরা সেসব ঐতিহ্য হারাব। তাই দ্রুত চাঁদপুরকে রক্ষায় পদক্ষেপ নিতে হবে।
এ সময় সংগঠনের বেশ কিছু সদস্য এবং ঢাকায় বসবাসরত চাঁদপুরের বাসিন্দাগণ উপস্থিত ছিলেন।
চাঁদপুরকে রক্ষায় কার্যকরী পদক্ষেপ দ্রুতসময়ের মধ্যে না নিলে আরও কঠিন আন্দোলনের কর্মসূচি দিবেন বলে ঘোষণা দেন সংগঠনের সদস্যগণ।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ