আজ ১০ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জুলাই, ২০২১ ইং

মৌলভীবাজারে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের অভিযানে ৪ টি প্রতিষ্ঠানকে ৭ হাজার টাকা জরিমানা

 

কাইয়ুম সুলতানঃ

মৌলভীবাজারে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের সার্বিক নির্দেশনা এবং জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসানের তত্ত্বাবধানে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর মৌলভীবাজার জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো: আল-আমিন এর নেতৃত্বে ও জেলা গোয়েন্দা শাখার পুলিশ ফোর্সের সহযোগিতায় অভিযান পরিচালিত হয়।
সোমবার (২০ জুলাই) মৌলভীবাজার সদর এবং কমলগঞ্জ উপজেলার বনশ্রী এলাকা, ওয়াপদা রোড, কালেঙ্গা বাজারসহ বিভিন্ন জায়গায় নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রীর হাট বাজার, ফার্মেসী এবং অন্যান্য দোকানে মনিটরিং ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।
অস্বাস্থ্যকর ভাবে খোলা অবস্থায় রাস্তার পাশে খাদ্য পণ্য রেখে বিক্রয় করা, বিস্কোরক আইনের শর্ত লংঘন করে ঝঁকিপূর্ণভাবে রাস্তার পাশে গ্যাস সিলিন্ডার রেখে বিক্রয় করা, মূল্য তালিকা না রাখা, অতিরিক্ত দামে বাসা বাড়ির গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রয় করা, মেয়াদ উত্তীর্ণ খাদ্য পণ্য বিক্রয় করাসহ বিভিন্ন অনিয়মের দায়ে সদর উপজেলার বনশ্রী এলাকায় অবস্থিত সুমাইয়া ষ্টোরকে ৫ শত টাকা, ওয়াপদা রোডে অবস্থিত নিউ জারা ষ্টোরকে ৫ শত টাকা, কমলগঞ্জ উপজেলার কালেঙ্গা বাজারে অবস্থিত দেলোয়ারের হোটেলকে ৪ হাজার টাকা, আল্লার দান মায়ের দোয়া ষ্টোরকে ২ হাজার টাকা জরিমানা আরোপ ও তা আদায় করা হয়।
এ অভিযানে মোট ৪ টি প্রতিষ্ঠানকে সর্বমোট ৭ হাজার টাকা জরিমানা ও তা আদায় করা হয়।
জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর মৌলভীবাজার জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো: আল-আমিন জানান, পেঁয়াজ, রসুন, আদা, চাল, তেল, শাক-সবজি, কাচামাল, মশলাসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী ন্যায্য মূল্যে প্রাপ্তি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এবং কেউ যাতে খাদ্য মজুত করে কৃত্রিম সঙ্কট তৈরি করতে না পারে, ভোগ্য পণ্য সামগ্রীর দাম যেন কেউ অনৈতিক ভাবে বাড়াতে না পারে এবং নকল হ্যান্ড সেনিটাইজার ও নিম্ন মানের সংক্রমণরোধী জীবাণুনাশক বিক্রয় না করতে পারে সেই লক্ষ্যে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কর্তৃক প্রতিনিয়ত বাজার মনিটরিং কার্যক্রম চলমান থাকবে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ