আজ ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

শেরপুর-জামালপুর সরাসরি যান চলাচল বন্ধ

 

শেরপুর প্রতিনিধিঃ

শেরপুরে ব্রক্ষপুত্র নদের পানির বৃদ্ধি অব্যহত রয়েছে। এতে শেরপুর সদর উপজেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। এতে উপজেলার কামারেরচর, চরপক্ষিমারী ও বলায়েরচর ইউনিয়নের অধিকাংশ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। চরমোচারিয়া ও চরশেরপুর ইউনিয়নের বেশ কিছু গ্রামেও পানি ঢুকেছে। এসব এলাকার হাজার হাজার মানুষ পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। শেরপুর-জামালপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের পোড়ারদোকান ও শিমুলতলীতে দুটি কজওয়েতে প্রবল বেগে পানি প্রবাহিত হওয়ায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে শেরপুরের সাথে যমুনা সারকারখানাসহ উত্তরাঞ্চলের সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।
পাটের আবাদ ও আমন ধানের বীজতলা পানির নীচে তলিয়ে গেছে। পানির নীচে তলিয়ে গেছে সবজীর আবাদ। চরপক্ষীমারীর কুরুলচর ব্যাপারী পাড়া ও নতুনচরের তিনশতাধিক পরিবার জামালপুর শহর রক্ষা বাধে ও স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে আশ্রয় নিয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে এসব ইউনিয়নে ৮ মেট্রিক টন চাল বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে। এদিকে শেরপুর সদর উপজেলার তালুকপাড়া গ্রামের সড়কটি মৃগী নদীর ভাঙ্গনে ভেঙ্গে যাচ্ছে। ব্রক্ষপুত্র নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে নকলা উপজেলার দক্ষিন নারায়নখোলা গ্রামটি।
শেরপুর সদরন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফিরোজ আল মামুন জানান, আমরা পর্যবেক্ষন করছি, যেখানে ত্রানের প্রয়োজন হবে সেখানেই দেয়া হবে। সদর উপজেলার বন্যাকবলিত ইউনিয়নগুলোর জন্য নতুন করে চাল বরাদ্ধ চাওয়া হয়েছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ