আজ ৩১শে আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই অক্টোবর, ২০২১ ইং

কুড়িগ্রাম ,হাতিয়ায় ট্রাক আনলোড কে কেন্দ্র করে নতুন শ্রমিক গ্রুপের উপর হামলা আহত ৪ 

 

কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি:
ডাঃ রফিক :

কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুর উপজেলাধীন হাতিয়া ইউনিয়নের বাগুয়া অনন্তপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নির্ধারিত দিনে উলিপুর লোড আনলোড শ্রমিক ইউনিয়নের রেজিস্ট্রেশনকৃত দুটি দল দিন ভাগ করে কাজ করার সময় সদ্য নিবন্ধনকৃত তৃতীয়পক্ষের দ্বারা হামলার শিকার হয়েছে বলে জানা গেছে।

৭ জুলাই ২০২০ইং রোজ মঙ্গলবার সকাল ১০ ঘটিকায় এ হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।

জানা যায়, একই পাড়ার সদ্য রেজিস্ট্রেশন করে আনা ‘আঞ্চলিক শ্রম অধিদপ্তর, রংপুর’ এর সদস্যরা লাঠিসোটা নিয়ে অতর্কিত হামলা চালান। অবস্থা বেগতিক দেখে উক্ত বাগিয়ে যাওয়া পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনার জন্য উপস্থিত জনগনসহ উক্ত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বি,এম আবুল হোসেন দু’পক্ষকে সামলাতে এগিয়ে গেলে সদ্য রেজিস্ট্রিকৃত সদস্যদের লাঠির আঘাতে তিনিও জখম হন।

ঘটনাস্থলে ৪ জন গুরুতর আহত হলে ১জনকে কুড়িগ্রাম সরকারি হাসপাতাল ও বাকি ৩ জনকে উলিপুর উপজেলা হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

আহতরা হলেন, জাহাঙ্গীর (৩৪) পিতা আব্দুল আওয়াল। অকলোদ্দি (৩৮)পিতা মৃত আজগর, আইনুল (৩৩) পিতা মৃত লতিফ। ইউনুস (২৮) পিতা আব্দুল আওয়াল।

উলিপুরের হাতিয়া এলাকায় লোড আনলোডে গত প্রায় ১০ বৎসর থেকে কাজ করে আসা স্থানীয় শ্রমিক গ্রুপের সদস্যরা এতদিন উলিপুরের ২ টি গ্রুপের সাথে সমঝোতা করে দিন ও সময় ভাগ করে কাজ করে আসছিলো।

আহত শ্রমিক গ্রুপরা গত ১৪/০৬/২০২০ইং কুড়িগ্রাম জেলা সমবায় অফিস থেকে একতা কুলি শ্রমিক লোড আনলোড সমবায় সমিতি লিঃ নামে নিবন্ধিত হয়। নিবন্ধন নং ০০৭৫।

উল্লেখ্য, হাতিয়া এলাকায় কর্মরত শ্রমিকরা আঞ্চলিক শ্রম অধিদপ্তর রাজশাহী কর্তৃক নিবন্ধিত ২৫৮২ মন্জু গ্রুপ ও ২৫৭৯ হামিদ গ্রুপ উলিপুর উপজেলার কার্ড নিয়ে কাজ করে আসছিলেন বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে উলিপুর হাতিয়া ইউনিয়ন বিট পুলিশ অফিসার এ এস আই সন্চয় দে ঘটনার সত্যতা স্মীকার করেন এবং আহতরা চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানান। এ ঘটনায় উলিপুর থানায় এখনও অভিযোগ দেয়া হয়নি বলে জানা গেছে। অপরদিকে আহত শ্রমিকদের সংগঠন ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ