আজ ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২১শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

লঞ্চের কিশোরীর যৌন হয়রানির ঘটনায় মামলা দায়ের

 

খান ইমরান :

অবশেষে কিশোরীকে যৌন হয়রানির ঘটনায় কর্ণফুলি-১৩ লঞ্চের বাবুর্চির বিরুদ্ধে তজুমদ্দিন থানার মামলা দায়ের হয়েছে। যৌন হয়রানির শিকার কিশোরী বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। পরে আসামীকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করেন পুলিশ।

মামলার এজহার সুত্রে জানা যায়, গত শনিবার তজুমদ্দিন স্লুইজঘাট থেকে কাজের সন্ধানে ঢাকা যাওয়ার জন্য কর্ণফুলি-১৩ লঞ্চে উঠে পায়ের ময়লা ধোয়ার জন্য লঞ্চের পিছনে টিউবওয়েলে পা ধুয়ে টয়লেটের সামনে দাঁড়ালে লঞ্চের বাবুর্চি হোসেন ওরফে গিয়াস উদ্দিন ২শত টাকার বিনিময়ে তার সাথে কেবিনে রাত্রি যাপনের কু-প্রস্তাব দেয় এবং আমি কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় আসামী গিয়াস আমার হাত ধরে কেবিনে যেতে টানা হেচড়া করেন। ইজ্জত বাঁচাতে আমি তজুমদ্দিন চৌমুহনী সংলগ্ন মেঘনা নদীতে ঝাঁপ দেই। পরে জেলেরা আমাকে উদ্ধার করে তজুমদ্দিন হাসপাতালে ভর্তি করেন। এঘটনার ৩দিন পর যৌন হয়রানির শিকার কিশোরী বাদী হয়ে কর্ণফুলি-১৩ লঞ্চের বাবুর্চি ও ভোলার চর শিফলী খেয়াঘাট ১নং ওয়ার্ড এলাকার মোঃ তাজল মাঝির ছেলে মোঃ হোসেন ওরফে গিয়াসউদ্দিনকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-০১। পরে পুলিশ আসামীকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করে।
তজুমদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম জিয়াউল হক বলেন, যৌন হয়রানির শিকার কিশোরী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়েরের পর আসামীকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ