আজ ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং

শাহরাস্তিতে দশম শ্রেণির ছাত্রীর আত্মহত্যা

 

ইব্রাহীম খলীল সবুজ – চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধিঃ

চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে এক কিশোরী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।
৩ই জুলাই শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫টায় উপজেলার নোয়াগাঁও গ্রামে ঘটে।

তথ্য সূত্রে জানা যায়, ওই গ্রামের আবদুর রহমান মুন্সী বাড়ির শরীফ উদ্দীন লিটনের মেয়ে ইশরাত জাহান রিয়া (১৫) তাদের রান্না ঘরের আঁড়ার সাথে নিজের ওড়না প্যাঁচিয়ে গলা ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।
সে নোয়াগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণীতে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থী। ২ ভাই ২ বোনের মধ্যে সে তৃতীয়।

এব্যাপারে রিয়ার মা জাহানারা বেগম (৩৮) বলেন, আমি আসরের নামাজ শেষে পাশেই আমার বাবার বাড়িতে যাই। যাওয়ার সময় রিয়াকে ঘরের খাবারের পানি আনতে বলি। রিয়া চলে যায় পানি আনতে আর আমি চলে যাই বাবার বাড়ি। তার প্রায় এক ঘন্টা পর মানুষের ডাক চিৎকার শুনে দৌঁড়ে এসে দেখি আমার মেয়ে রিয়া ফাঁসিতে ঝুলছে।
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, সে কেন ফাঁসি দিয়েছে তা আমার জানা নেই। ঘরে তার সাথে আমার এমন কিছু হয়নি এবং কেউ তাকে কিছু বলেওনি। আত্মহত্যার কারণ বলতে না পারায় তিনি কাঁন্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

রিয়ার ছোট ভাই সৌরভ (১০) বলে, আমি সন্ধ্যার আগ মূহুর্তে হাঁস খুঁজতে ঘরের পূর্ব দিকে গেলে জানালা দিয়ে দেখি আপু ঘরের আঁড়ার সাথে ঝুলছে। দৌঁড়ে এসে ওই ঘরের দরজা ধাক্কা দিয়ে দেখি ভিতর থেকে বন্ধ। তখন আমার ডাক-চিৎকারে বাড়ির লোকজন এগিয়ে আসে এবং দরজা ভেঙে ঘরের ভিতরে ডুকে। এতক্ষণে আমার আপু মারা গেছে। শুধু তার নিথর দেহটাই ঝুলছে। তাকে প্রশ্ন করা হলে সে আরও বলে, আমি বিকেলে খেলতে যাই। খেলা শেষ বাড়ি ফিরে হাঁস খুঁজতে গিয়ে আপুর এই অবস্থা দেখতে পাই। এছাড়া আর কিছুই দেখিনি এবং বলতেও পারিনা।

এলাকাবাসী জানান, আমাদের জানা মতে রিয়া আত্মহত্যা করার মত এমন কিছুই ঘটেনি। তার বাবা-মা’র সাথে ঝগড়া, অথবা মারধর এমন কি কারও সাথে প্রেম সংগঠিত বিষয়ও আমাদের জানা নেই। কি কারনে সে এঘটনা ঘটিয়েছে তারা বুঝতে পারছেন না বলে তারা জানান।

খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

এবিষয়ে ওসি (তদন্ত) আবদুল মান্নান বলেন, এঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু করা হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শেষে পরবর্তি ব্যবস্থা গ্রহন করবেন বলে তিনি জানান।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ