আজ ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জুলাই, ২০২১ ইং

করোনা যোদ্ধা সজ্জাদ পারভেজ শুদ্ধাচার পুরস্কারে মনোনীত

খাঁন ইমরান,  বরিশাল প্রতিনিধি :   

বরিশাল সামাজিক মেয়েদের প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের ব্যবস্থাপকের অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা জেলা প্রবেশন কর্মকর্তা সাজ্জাদ পারভেজকে করোনাকালীণ সময় তার কার্যক্রম থেকে শুরু করে গত এক বছরের কর্মকান্ড বিশ্লেষনে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের শুদ্ধাচার পুরস্কারে মনোনীত করা হয়েছে। সমাজসেবা অধিদপ্তরের থেকে গত রোববার এ মনোনয়ন দেয়া হয়। শুদ্ধাচারে মনোনীত হওয়ায় গতকাল সোমবার প্রবেশন কর্মকর্তা সাজ্জাদ পারভেজকে ফুলের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান। এছাড়া তার দপ্তর থেকে শুরু করে সহকর্মী, বন্ধু-বান্ধব এবং স্বজনরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে সাজ্জাদ পারভেজ শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করে সামনে এগিয়ে চলার আহ্বান জানান।

বরিশাল সমাজসেবা কার্যালয় সূত্র জানায়, গত তিন বছর ধরে সাজ্জাদ পারভেজ বরিশাল সামাজিক মেয়েদের প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের ব্যবস্থাপকের অতিরিক্ত দায়িত্বে রয়েছেন। ওই সময়ের মধ্যে ৫ জন মেয়েকে বিয়ের মাধ্যমে এবং ১২ জন মেয়েকে কাজের মাধ্যমে পুনর্বাসন করেছেন। পুনর্বাসন করেই খ্যান্ত হননি। তারা স্বামীর ঘরে কেমন আছে, সেখানে কোন সমস্যা আছে কিনা তার ফলোআপ করছেন তিনি। এমনকি যে সকল মেয়েরা কাজ করছেন তাদেরও খোঁজখবর রাখছেন সাজ্জাদ পারভেজ। বর্তমানে ওই কেন্দ্রে ৩৫ জন মেয়ে রয়েছে। তাদের বিভিন্ন ধরনের কাজ শেখানো হচ্ছে। ওই কাজের মাধ্যমে তাদের পুনর্বাসিত করা হবে। সূত্রটি আরো জানান, সাজ্জাদ পারভেজ ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে থাকাকালীন সামাজিক মেয়েদের প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রটি সুন্দর-সুষ্ঠু ও সুশৃংখলভাবে পরিচালিত হয়ে আসায় এবং করোনাকালীন সময় সেখানকার কোন মেয়ে কিংবা কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত না হওয়ার পিছনেও তার অবদান রয়েছে। সাজ্জাদ পারভেজ করোনাকালীন সময় সামাজিক স্বাস্থ্য বিধি মেনে সকলকে চলতে বাধ্য করেন। এতে করে ওই কেন্দ্রে থাকা সকলেই সুস্থ রয়েছেন।

এছাড়া করোনা ভাইরাস শুরুর পর থেকে প্রবেশন কর্মকর্তা সাজ্জাদ পারভেজ একজন করোনা যোদ্ধা হিসেবে মাঠে রয়েছেন। সকল ভয়ভীতি উপেক্ষা করে জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমানের নির্দেশে সকাল থেকে রাত অবধি অসহায় মানুষে মাঝে খাদ্য বিতরণ করে আসছেন। বিশেষ করে প্রতিবন্ধী, হিজড়া সম্প্রদায়, বেদে জনগোষ্ঠী, কর্মহীন মানুষ এবং শিশুদের মাঝে খাদ্য থেকে শুরু করে নগদ অর্থ ও শিশু খাদ্য-ওষুধ বিতরণ করেছেন। তা এখনো চলমান রয়েছেন বলে জানান শুদ্ধাচার পুরস্কারে মনোনীত হওয়া প্রবেশন কর্মকর্তা সাজ্জাদ পারভেজ।

ঢাকার সমাজসেবা অধিদপ্তর সূত্র জানায়, সততা, কাজের প্রতি নিষ্ঠাবান থেকে শুরু করে বরিশাল সামাজিক মেয়েদের প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্র সুষ্ঠু-সুন্দর ও সুশৃংখলভাবে পরিচালনা করা। একই সাথে করোনা শুরু পর থেকে এতিম, অসহায় ও অসুস্থ এবং শিশুদের খাদ্য সহায়তার কর্মকান্ড পর্যালোচনায় সাজ্জাদ পারভেজকে এ শুদ্ধাচার পুরস্কারে মনোনীত করা হয়েছে।

ইতোপূর্বে প্রবেশন কর্মকর্তা সাজ্জাদ পারভেজ ২০১৭ সালে জেলা প্রশাসন পদক এবং ২০১৮ সালে দেমের মধ্যে শ্রেষ্ঠ প্রবেশন অফিসার হিসেবেও মনোনীত হয়েছিলেন।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ